প্রত্যেকটা ছেলে বা মেয়েই চায় যে তাকে দেখতে একটু সুন্দর লাগুক, সেটা তাঁর নিজের ও ভালো লাগে। প্রত্যেকটা মানুষেরই ইচ্ছা থাকে তাদের মুখটা যেন একটু সুন্দর থাকে। আপনি কি জানেন যে, মুখের সৌন্দর্য বাড়ানোর ক্ষেত্রে আমাদের ঠোঁটেরও কিন্তু একটি খুব বড় ভূমিকা আছে। যদি কখনো আমাদের ঠোঁট ফেটে যায়, তবে আমাদের মুখের ও উজ্জ্বল ভাব অনেকাংশে কমে যায়। এমন অনেক মেয়েই আছে যারা তাঁদের ঠোঁটে প্রচুর পরিমাণে কেমিক্যাল জাতীয় জিনিস ব্যবহার করে। আর এই কেমিক্যাল জাতীয় জিনিস ব্যবহার করার ফলেই ঠোঁট ফেটে যায়, এবং কালো দেখায়। আর তখন সেই কালো ঠোঁট সমাজের চোখে লোকানোর জন্যই মেয়েরা লিপস্টিক ব্যবহার করে থাকে।

কিন্তু যতক্ষণ এই লিপস্টিক ব্যবহার করা হয়, তার কিছুক্ষণ সময় পর্যন্ত ঠোঁট গোলাপি থাকে। কিন্তু তারপর যখন লিপস্টিক উঠে যায়, তখন আবার সেই কালো এবং ফাটা ঠোঁট সবার চোকের সামনে চলে আসে। কিন্তু আপনাদের আর এবার থেকে চিন্তা করার কোন দরকার নেই কারণ আজকে আমরা আমাদের ঘরেই থাকা কিছু উপায় বলবো যাতে আপনার কালো ঠোঁট টি আবার গোলাপি করা যাবে।

দুধের সর লাগালে ঠোঁটের রুক্ষতা কমে যায় –

রাতে শোয়ার আগে যদি আপনি ঠোঁটে দুধের সর লাগান তাহলে আপনার ঠোঁট গোলাপি হবে এবং ঠোঁটের রুক্ষতাও অনেকটা কমে যাবে।

কেশর ও একটি ভালো উপায় –

যদি গোলাপি ঠোঁট পেতে চান তাহলে,কেশরকে কাঁচা দুধে ভালো করে মিশিয়ে নিন, আর তারপর যদি সেটা যদি ঠোঁটে লাগান তাহলে দেখবেন আপনার ঠোঁট গোলাপি এবং সুন্দর হবে।ঠোঁটের কালো ভাব ও দূর হয়ে যাবে।

গোলাপ জল লাগালেও ঠোঁট গলাপি হয় –

গোলাপের পাপড়ি পিষে নিয়ে সেটা যদি রাতে ঠোঁটে লাগাতে পারেন তাহলেও আপনার ঠোঁট গোলাপি হবে। এছাড়া গোলাপ জলের সাথে একটু মধু মিশিয়ে সেটিকে যদি ঠোঁটে লাগাতে পারেন, তাহলেও আপনার কালো ঠোঁট গোলাপি হয়ে যাবে।

লেবুর রস লাগালে ঠোঁটের কালোভাব দূর হয়ে যায়–

ঠোঁটের কালোভাব দূর করার ক্ষেত্রে লেবুর রস ও খুবই ভালো দাওয়াই। রাতে শোয়ার আগে যদি এটি ঠোঁটে লাগিয়ে ঘুমোতে পারেন, তাহলে কিছু দিন পরই দেখতে পাবেন ঠোঁটের রঙের কেমন পার্থক্য ঘটেছে।

দুধ আর হলুদের পেস্ট ও ব্যবহার করতে পারেন –

আপনার বাড়িতে থাকা হলুদ ও কিন্তু আপনার ঠোঁট গোলাপি করতে পারে। হলুদ আর দুধ একসাথে মিশিয়ে পেস্ট করে যদি লাগাতে পারেন তাহলে কিছুদিনের মধ্যেই আপনার ঠোঁট গোলাপী হয়ে যাবে।

ভ্যাসলিনের সাথে অলিভ অয়েল মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান –

ঠোঁটকে গোলাপী করার আরও একটি খুবই সোজা উপায় হল ভ্যাসলিনের মধ্যে অলিভ অয়েল মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান, তাহলে দেখবেন আপনার ঠোঁট কিছুদিনের মধ্যেই গোলাপী এবং মসৃণ হয়ে উঠবে।

বেদানা নিয়ে ঠোঁটে ঘষুন –

এক টুকরো বেদানা নিয়ে ঠোঁটে ঘষলেও ঠোঁটে থাকা কালোভাব চলে যায়। যদি আপনি বেদানার টুকরোকে রোজ ঠোঁটে ঘষতে পারেন, বা তার রস ঠোঁটে লাগান তাহলে দেখতে পাবেন তার কালোভাব অনায়াসেই দূর হয়ে যাবে এবং আপনার ঠোঁট ও সুন্দর হবে।

Image Source : Google

এই সহজ উপায় গুলোর মধ্যে যদি একটিও উপায় আপনি বাড়িতে ব্যবহার করেন তাহলে নিশ্চিত এটুকু নিশ্চিত, যে আপনার ঠোঁট কালো থেকে গোলাপি ও সুন্দর হতে বাধ্য।

The post ঠোঁটে কালো দাগ?কালো দাগ নিমেষেই ভ্যানিশ হয়ে যাবে এই ঘরোয়া মিশ্রণটি ব্যবহার করলে appeared first on Moner Diary.


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *