একটা কথা প্রচলিত আছে যে, স্বাস্থ্যই মানুষের আসল সম্পদ। আর এই স্বাস্থ্যই যদি ভালো না থাকে তাহলে শুধু যে শরীরের নানারকম সমস্যা দেখা দেয় তা নয় তার সাথে সাথে মেজাজটাও খিটখিটে হয়ে যায়, মানসিক শান্তিটাই পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যায়। আমাদের শরীরের ছোট ছোট অনেক সমস্যা থাকে যেগুলোর উপর আমরা কখনোই নজর দিই না, এড়িয়ে যাই, যার ফলে আমাদের সমস্যা আরও বেড়ে যায়। এই রোজকার সমস্যার মধ্যে পেটের সমস্যা বা কোষ্ঠকাঠিন্যতা হল অন্যতম।

মানুষের শরীর থেকে যদি অতিরিক্ত বর্জ্য পদার্থগুলো বেরিয়ে যেতে না পারে তাহলে সেখান থেকেই সৃষ্টি হয় যত সমস্যা। তাই সবারই পেট পরিস্কার হওয়াটা ভীষন দরকারী। অনেকেই এমন আছেন যারা পেটের সমস্যা দেখা দিলেই ডাক্তারের কাছে ছোটেন এবং ডাক্তারের প্রেসক্রাইব করা অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ খান এবং, তাঁদের পরামর্শ মেনে চলেন। সেই ওষুধ কাজ করে ঠিকই, তবে পেটের ভিতর থাকা খারাপ ব্যক্টেরিয়াগুলো মারার সাথে সাথে ভালো ব্যক্টেরিয়াও মরে যায় এই ওষুধের ফলে। এতে আমাদের শরীরের ওপর খারাপ প্রভাব পরে।

প্রাচীনকালে কিন্তু এতো ধরনের ওষুধ ছিল না, তখনকার যুগে যদি কোন অসুখ হতো তাহলে, একমাত্র ঘরোয়া টোটকার দ্বারাই রুগিকে সুস্থ করা হত। আর এই ধারা কিন্তু এখনোও কিছুটা হলেও প্রচলিত আছে। আমাদের এখনও এই অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা গ্রহন করার আগে ঘরোয়া টোটকার সাহায্য নেওয়া উচিৎ। এই ঘরোয়া ওষুধের উপাদানগুলি আমাদের শরীরের কোনরকম ক্ষতি করেনা। কিন্তু বেশি পরিমানে অ্যালোপ্যাথি ওষুধ আমাদের শরীরের ওপর মারাত্মক খারাপ প্রভাব ফেলে। তাই ছোট খাটো অসুখে আমাদের ঘরোয়া টোটকাই ব্যবহার করা উচিৎ।

আমাদের সবার ঘরেই এমন কিছু জিনিস সবসময়ই থাকে যা দিয়ে আমাদের লিভার ও মলাশয় পরিষ্কার করা সম্ভব, আর এইসব ঘরোয়া উপাদানগুলি কখনোই আমাদের শরীরে থাকা ভালো ব্যাকটেরিয়াদের নষ্ট করে না। এমনিতে ইসবগুল বা সহজে পচে যায় এমন খাবার,যেমন বিভিন্ন ধরনের শাক, অথবা মোচা পেট ভালো পরিস্কার করতে পারে। তবে যদি খুব দ্রুত এইসব সমস্যা থেকে মুক্তি চান তাহলে এই উপায়টি আপনাকে আরও বেশি সাহায্য করবে। আসুন জেনে নিই কি কি উপাদান দিয়ে এটি বানানো যায়?

উপকরন –

আপেলের রস নিন- হাফ কাপ;

লেবুর রস নিন – হাফ কাপ;

সামুদ্রিক নুন নিন – হাফ চামচ;

আদার রস নিন- এক চামচ;

জল নিন- অর্ধেক গ্লাস;

মিশ্রণটি খাওয়ার সময় –

প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে খান, দুপুরে খাবার আগে খান , আর রাতে শুতে যাওয়ার আগে দু-চামচ করে খেয়ে নিন। এই মিশ্রণটি যদি আপনি খেতে শুরু করেন দেখবেন আপনার পেট আস্তে আস্তে পরিস্কার হতে শুরু করবে।

মিশ্রণটি কতদিন ধরে খেতে হবে –

টানা সাতদিন তিনবার করে এই মিশ্রণ খেতে হবে।

Image Source : Google

মিশ্রণটি বানানোর পদ্ধতি –

প্রথমে একটু গরম জল ফুটিয়ে নিন। এরপর ওই ফুটন্ত জলে পরিমানমতো নুন মিশিয়ে নিন। নুন জলের সাথে সম্পূর্ণ মিশে গেলে এবার আঁচ বন্ধ করে দিন। এবার ওই নুন-জলের সাথে একে একে আপেলের রস, লেবুর রস, আদার রস ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর মিশ্রনটিকে অন্য পাত্রে রেখে ঠান্ডা করুন।

একটা কথা সবসময় মাথায় রাখবেন, যদি প্রতিদিন এই মিশ্রণটি খাওয়ার সময় এর সাথেই দুপুরে এক বাটি করে দই খেতে পারেন তাহলে আপনি আরও ভালো উপকার পাবেন। আপনার শরীরে হজম ক্ষমতা বেড়ে যাবে।

এরপর যখন দেখবেন পেটের সমস্যা দূর হতে শুরু করেছে তখন স্যালাড খান। আপনার যদি এই রকম সমস্যা দেখা দেয় তাহলে, ধূমপান, মদ্যপান থেকে দূরে থাকুন।

The post পেটের সমস্যা ?পেট পরিষ্কার রাখার ঘরোয়া টোটকা ;ফলাফল পাবেনই appeared first on Moner Diary.


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *