বিশেষ করে দক্ষিণ ভারতে নারকেল তেল দিয়ে রান্নার চল আছে যে আমরা সকলেই মোটামুটি জানি। তবে জানেন কি যে নারকেল তেল খাওয়া বিষ পানের সমতুল? চমকে দেওয়ার মতো এই মন্তব্য করেছেন হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কারিন মিশেলস।বুধবার আমেরিকার সংবাদপত্র ইউএসএ টুডে-তে দেওয়া সাক্ষাত্কারে বার বার তিনি বলেছেন, ‘আমি শুধু আপনাদের সাবধান করতে পারি যে, এটা অন্যতম খারাপ খাদ্য।’

মিশেলস জানিয়েছেন, তুলনায় মাখনে রয়েছে ৬৩% স্যাচুরেটেড ফ্যাট, গোরুর চর্বিতে ৫০% স্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং শুয়োরের চর্বিতে রয়েছে ৩৯% স্যাচুরেটেড ফ্যাট।

দক্ষিণ ভারতে, বিশেষ করে কেরালায় বহুল ব্যবহৃত নারকেল তেল ২০১১ সালে আমেরিকায় সুপারফুড তকমা পায়। জনমানসে ধারণা তৈরি হয়েছে যে, এই তেল খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় এবং ওজন কমে। কিন্তু হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকের মন্তব্যে সেই জনপ্রিয়তায় টান ধরতে বাধ্য।’খাদ্যে অতিরিক্ত মাত্রায় স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকলে শরীরে ক্ষতিকারক কোলেস্টেরল তৈরি করে। এর জেরে হার্ট অ্যাটাকের প্রবণতা বাড়ে। এই কারণে স্বাস্থ্যের পক্ষে নারকেল তেল চরম ক্ষতিকারক।’

তবে শরীরের পক্ষে নারকেল তেল খুব খারাপ নয় বলে জানিয়েছেন হাভার্ড স্কুল অফ পাবলিক হেল্থ-এর চিকিত্সক ওয়াস্টার সি উইলেট। তাঁর মতে, ‘নারকেল তেল থেকে উপকারী এইচডিএল কোলেস্টেরল বৃদ্ধির উপকরণও পাওয়া যায়। খাদ্যে স্যাচুরেটেড বা আনস্যাচুরেটেড ফ্যাটের উপস্থিতি এইচডিএল-এর মাত্রা বৃদ্ধি করে। নারকেল তেলের মধ্যে এই ক্ষমতা অন্য তেলের তুলনায় বেশি।’তবে উইলেটের মতে, নিয়মিত না খেয়ে বরং মাঝেসাঝে নারকেল তেল খাওয়াই স্বাস্থ্য সম্মত অভ্যাস।

The post নারকেল তেল আসলে বিষ, বিস্তারিত পড়ুন, কারনটি জানলে শিউরে উঠবেন appeared first on Moner Diary.

Categories: food

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *