এক প্যাকেট চিপস-এ ১২০০ ওপরে ক্যালোরি থাকে। অতিরিক্ত ক্যালরি মানব শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। তাছাড়া সাধারণত চিপসের সঙ্গে প্রচুর পরিমানে লবন থাকে এবং এ লবনই হলো মানব শরীরের জন্য ক্ষতিকর । যদিও লবন আমাদের শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং ক্ষয় রোধের জন্য একটি অতি প্রয়োজনীয় উপাদান। কিন্তু বিতর্কটা হলো লবনের পরিমান নিয়ে। সাধারনত ডাল-ভাত, মাছ-মাংস, ফল-মূল, শাকসবজি ইত্যাদিতে প্রাকৃতিকভাবে যে পরিমান লবণ থাকে তাতেই আমাদের শরীরের দৈনন্দিন লবণের চাহিদা পূরণ হয়ে যায়। এর অতিরিক্ত যে লবণ আমরা খাই, সেগুলো আমাদের শরীরের ওপর কী ধরনের ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে এ সম্পর্কে সর্বপ্রথম বাস্তবসম্মত গবেষণা পরিচালনা করেন ডা স্যামুয়েল হ্যানিম্যান।

প্রাপ্ত গবেষণায় তিনি দেখতে পান, লবণ প্রথমত মানুষের শরীরের রক্ত ধ্বংস করার মাধ্যমে রক্তস্বল্পতা সৃষ্টি করে। দীর্ঘদিন বেশি বেশি লবণ খাওয়ার ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দেয় অর্থাৎ পায়খানা শক্ত হয়ে যায় এবং তার থেকে পাইলস হয়। লবণ মানুষের ব্রেনের কর্মক্ষমতা কমিয়ে দেয়, রোগ প্রতিরোধ শক্তি দুর্বল করে দেয়। ফলে মানুষ ঘনঘন সর্দি, কাশি, ডায়রিয়া ইত্যাদি নানাবিধ রোগে আক্রান্ত হয়। এ ছাড়াও অতিরিক্ত লবণ খাওয়ার ফলে গেঁটেবাত, রিউমেটিক ফিভার, মুখের ঘা, ডায়াবেটিস, মাথাব্যথা, গলগন্ড, গ্যাষ্ট্রিক আলসার, ক্যান্সার প্রভৃতি মারাত্মক রোগের সৃষ্টি করে। বদমেজাজ, বিষণ্নতা বা মনমরাভাব, হতাশা, খুঁতখুঁতে স্বভাব, উন্মত্ততা ইত্যাদিও মাত্রাতিরিক্ত লবণ খাওয়া থেকে হয়। কাজেই যারা হরহামেশা সকাল-বিকাল শিশুদের নানা রকম চিপস খেতে দেন বা নিজেরা খান, এখন থেকে এ কাজ করার আগে তাদের অবশ্যই দ্বিতীয় বার ভেবে নেওয়া উচিত। ইডিস ন্যাশনাল ফুড অথোরিটি এই বাস্তব সত্যটা আবিষ্কার করেছে।

তাদের গবেষণায় বলা আছে, আলু এক প্রকার উচ্চ শ্বেতসার সমৃদ্ধ সবজি বা শস্য। এই আলুর অতি পাতলা করা স্লাইস অতিরিক্ত লবন, ডুব তেলে অনেকক্ষন ভাজাসহ সংরক্ষন করতে উচ্চতাপ ব্যবহার করার ফলে এর খাদ্যগুণ অনেকাংশে শুধু নষ্টই হয় না, এক্রাইলামাইড (Acryl amide) জাতীয় জটিল জীবননাশক যৌগ উৎপাদনে বিশেষ ভুমিকা রাখে। যা খুব দ্রুতগতিতে এক্রাইলামাইড মানবদেহে ক্যান্সারের বাসা বাঁধতে সহযোগিতা করে।

The post অতিরিক্ত চিপস খাবেন না appeared first on Moner Diary.

Categories: food

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *