Image Source : Google

নারী পুরুষ উভয়ই মিলিত হয়ে নিজেদের মধ্যে যৌনতাকে স্থান দিয়ে নানাভাবে ভালোবাসা এবং ফোরপ্লের মাধ্যমে এক সময় বির্যস্খলনের মাধ্যমে যখন চরম সুখ অনুভূত করে তখন তাকে অর্গ্যাজম বলে। এতে সুধু সুখই পাওয়া যায় না, সুখের পাশাপাশি এর কিছু উপকারী দিকও আছে। সেগুলি হলো-

ভাল এক্সারসাইজ: অর্গ্যাজমের পুরো প্রক্রিয়াটি শরীরের জন্য খুবই ভাল এক্সারসাইজ। সঙ্গমকালে এটি ক্যালরি কমাতে সাহায্য করে।

বয়স ধরে রাখে: অর্গ্যাজমের ফলে যৌন তৃপ্তি পেলে মহিলাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে। মুখে বয়সের ছাপ অনেক দেরিতে পড়ে। অর্থাৎ বয়স ধরে রাখে।

মানসিক চাপ কমে: ভাল অর্গ্যাজম অতিরিক্ত মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তাকে লঘু করে। উদ্বেগের বিষয়গুলোকে মন থেকে দূরে রাখে। মন থাকে হালকা ও উৎফুল্ল। মুড ভাল হয়।

বয়সকালের সমস্যা কমায়: যাদের নিয়মিত অর্গ্যাজম হয়, তাদের পেলভিক ফ্লোর মাসেল ভাল থাকে। ফলে বয়সকালে প্রস্রাব ধরে রাখতে না পারার সমস্যা ও ইউটেরাস নিচে নেমে আসার সমস্যার সম্ভাবনা কমে।

রক্ত সঞ্চালন ভাল হয়: অর্গ্যাজম ভাল হলে জনন তন্ত্রের রক্তপ্রবাহ বাড়ে। ফলে এই জনন অঙ্গের সজীবতা বাড়ে। মেনস্ট্রুয়াল সাইকেল স্বাভাবিক হয়।

ঘুম ভাল হয়: অর্গ্যাজমের কারণে দেহে এনডরফিন হরমোন উৎপাদন হয় যা ঘুম ভাল হতে সাহায্য করে।

Image Source : Google

ব্যথা কমায়: মাইগ্রেনের ব্যথা, মানসিক চাপ থেকে মাথার যন্ত্রণা, যে কোনও ধরনের সার্জারির ব্যথা কমাতে অর্গ্যাজমের ভূমিকা রয়েছে।

আয়ু বাড়ায়: গবেষণায় দেখা গিয়েছে, অর্গ্যাজমের চরম সুখ যারা পেয়েছেন তাদের করোনারি আর্টারি ডিজিজ হওয়ার সম্ভাবনা খুব কম থাকে। ফলে তাদের অকালে মৃত্যু হয় না। অনেক বছর বাঁচে।

The post অর্গ্যাজমের উপকারী দিকগুলি জানেন কি ? ৮ নং জানলে চমকে যাবেন appeared first on Moner Diary.


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *